অ্যাড. কামরুল ইসলাম ইন্তেকাল জেলা জামায়াতে ইসলামী’র শোক

শাহ আলম খান

চাঁদপুর জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি ও জেলা দায়রা জজ আদালতের সাবেক পিপি মরহুম অ্যাডঃ কামরুল ইসলামের মৃত্যুতে শোক সভা ও জেলা জজ আদালতে ফুল কোট রেভারেন্স পালিত হয়েছে।

সোমবার ৩০ সেপ্টেম্বর সকাল ১০টায় চাঁদপুর জেলা আইনজীবী সমিতি ভবনের সামনে নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। নামাজে জানাজায় ইমামতি করেন চাঁদপুরের জেলা ও দায়রা জজ মো. জুলফিকার আলী খাঁন। নামাজে জানাজায় চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক মো. মাজেদুর রহমান খান, অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ গোলাম সারোয়ার, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাড. জহিরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত হোসেন, সাবেক সভাপতি অ্যাড. ইকবাল-বিন বাশার, অ্যাড. সেলিম আকবর, অ্যাড. জহিরুল ইসলাম, সিনিয়র আইনজীবী শেখ হাবিবুর রহমান, পিপি আমান উল্লাহ, অ্যাড. শাহজাহান মিয়া, অ্যাড. তাহের, অ্যাড. রুহুল আমিন, অ্যাড. সালেহ উদ্দিন, অ্যাড. কামাল উদ্দিন, অ্যাড. তাহের পাটওয়ারী, অ্যাড. জহির উদ্দিন বাবার, অ্যাড. জসিম উদ্দিন পাটওয়ারী, অ্যাড. দুলাল, অ্যাড. চৌধুরী ইয়াছিন ইকরামসহ আইনজীবী সমিতির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান ও বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য সফিকুর রহমান ভুঁইয়াসহ স্থানীয় ধর্মপ্রাণ মুসল্লীবৃন্দ।

অ্যাডঃ কামরুল ইসলামের ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করে শোক সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতিসমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন জেলা জামায়াতে ইসলামীর আমির অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুল রহিম পাটওয়ারী, সেক্রেটারী মাওলানা বিল্লাল হোসেন মিয়াজী, চাঁদপুর সদর উপজেলার সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান এডভোকেট মো: শাহজাহান মিয়া, শহর আমীর মো: শাহ আলম, সেক্রেটারী মো: সাইফুল আলম, সদর আমীর জাহাঙ্গীর আলম প্রধান, সেক্রেটারী নাছির উদ্দিনসহ নেতৃবৃন্দ।

উল্লেখ্য, সোমবার ভোরে অ্যাড. কামরুল ইসলাম ঢাকা এ্যাপোলো হসপিটালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৬৫ বছর। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ৩ কন্যা সন্তান, সহকর্মীসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে যান। দুপুর আড়াইটায় মতলব উত্তর উপজেলার রায়পুরা ইসলামাবাদ কবরস্থান ময়দানে নামাজে জানাজা শেষে তাকে দাফন করা হবে।

সোমবার ৩০ সেপ্টেম্বর দুপুরে জেলা আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে শোক সভা আয়োজন করা হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডঃ শেখ জহিরুল ইসলাম। শুরুতে কোরআন তেলোয়াত করেন আলহাজ¦ আবু তাহের পাটওয়ারী। দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন অ্যাডঃ মোঃ আবুল খায়ের খান।

মরহুমের জীবন বৃত্তান্ত পাঠ ও সভা পরিচালনা করেন জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারন সম্পাদক অ্যাডঃ শাহাদাত হোসেন। সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা আইনজীবী সমিতির সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডঃ আলহাজ¦ কাজী হাবিবুর রহমান, আলহাজ¦ মোঃ রুহল আমিন-১, আলহাজ¦ মোঃ ফজলুল হক সরকার, অ্যাডঃ ইকবাল বিন বাশার, অ্যাডঃ সেলিম আকবর, অ্যাডঃ মোঃ জহিরুল ইসলাম, জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পিপি অ্যাডঃ আমানউল্লাহ, অ্যাডঃ আহসান হাবিব, অ্যাডঃ মোঃ মনোয়ারুল ইসলাম, অ্যাডঃ মোঃ রুহল আমিন সরকার ( জিপি), অ্যাডঃ আলহাজ¦ মোঃ মজিবুর রহমান ভুঁইয়া,

অ্যাডঃ আঃ লতিফ শেখ, অ্যাডঃ মো: শাহজাহান মিয়া, অ্যাডঃ সাইয়েদুল ইসলাম বাবু, অ্যাডঃ মোঃ এমরান হোসেন, অ্যাডঃ জসিম উদ্দিন ভূইয়া মিঠু, অ্যাডঃ হালিম পাটওয়ারী, অ্যাডঃ মোঃ শহীদ উল্লাহ পাটওয়ারী, অ্যাডঃ মোঃ নাছিরউদ্দিন চৌধুরী, অ্যাডঃ আবুল খায়ের মোঃ সালেহ, অ্যাডঃ মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, অ্যাডঃ কামালউদ্দিন আহমেদ, অ্যাডঃ মোঃ মোস্তাক আহমেদ, অ্যাডঃ মোহাম্মদ বাবর বেপারী, অ্যাডঃ গোলাম মোস্তফা, অ্যাডঃ শরীফ মাহমুদ ফেরদাউস শাহীন, অ্যাডঃ তোফায়েল হোসেন যোশেফ, অ্যাডঃ মোঃ জয়নাল আবেদীন প্রমুখ।

শোকসভা শেষে জেলা ও দায়রা জজ আদালতে জেলা ও দায়রা জজ মোঃ জুলফিকার আলী খাঁনের উপস্থিতিতে ফুলকোর্ট রেভারেন্স পালন করা হয়। এ সময় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুন্যালের বিচারক (জেলা জজ) মাহমুদুল কবির, অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মোঃ সরোয়ার আলম, চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ নুরে আলম সহ বিভিন্ন আদালতের বিচারক ও জেলা আইনজীবী সমিতির আইনজীবীগন উপস্থিত ছিলেন। এ সময় দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন আইনজীবী অ্যাডঃ কাজী মোজাম্মেল হোসেন।

Related posts