দোকানে সন্ত্রাসী হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটের প্রতিবাদে ফরিদগঞ্জ বিরামপুর বাজার ব্যবসায়ীদের বিক্ষোভ মিছিল

স্টাফ রিপোর্টার

ফরিদগঞ্জ উপজেলার বিরামপুর বাজারে দোকানে সন্ত্রাসী হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটের প্রতিবাদে বাজার ব্যবসায়ীদের বিক্ষোভ মিছিল ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার ৪ অক্টোবর বিকেলে বিরামপুর বাজারের বিভিন্ন রাস্তায় এ বিক্ষোভ মিছিল প্রদক্ষিন হয়ে মধ্য বাজারে ব্যবসায়ী সমিতির আয়োজনে এ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

ব্যবসায়ীরা বলেন, গত মঙ্গলবার বাজারের ভাই ভাই ইত্যাদি স্টোরে যারা সন্ত্রাসী হামলা ও লুটপাট করেছে। আমরা প্রশাসনে কাছে তাদের বিচার চাই। এ ধরনে সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজ যেন ভবিষতে বাজারে প্রবেশ করতে না পারে সে জন্য সকল ব্যবসায়ী লক্ষ রাখতে হবে। বাজারে এ ধরনের অন্যায় অত্যাচার বন্ধ করতে হবে। এ জন্য সকল ব্যবসায়ী একতাবদ্য হয়ে যে কোন অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে হবে।

বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন ১২ন ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মাস্টার নুরুল হুদা, ব্যবসায়ী মো: মনির হোসেন, সুমন হোসেন, মাস্টার রিপন হোসেন। উপস্থিত ছিলেন বাজারের অন্যান্য ব্যবসায়ী ও কর্মচারীবৃন্দ।

বাদীপক্ষের আব্বাছ হাওলাদার জানান বাজারের ভাই ভাই ইত্যাদি স্টোরে সন্ত্রাসী হামলা ও লুটপাটে যারা: চরদু:খিয়ার নাঈম বেপারীর(২৬) পিতা- আ: মান্নান বেপারীর নেতৃত্বে মিঠু গাজী(২৬) পিতা-নেছার গাজী, রাকিব বেপারী(২৫) পিতা- হোসেন বেপারী, রিয়াজ বেপারী (২৪) পিতা- টিটু বেপারী, মাসুম গাজী (২৮) মনির গাজী, পবন বেপারী (২৩) পিতা- খোকন বেপারী, আফসার হোসেন (২৪) পিতা- আনিছ গাজী, জাফর গাজী (২৬) পিতা-সৌরভ গাজীসহ আরো ৭/৮জনে দেশীয় অস্ত্রে সস্ত্রে নিয়ে দোকানের ভিতর ঢুকে আমাকে মেরে ফেলার চেষ্ঠা করে। আমি প্রশাসনের কাছে এর একটি সঠিক বিচার চাই।
ফরিদগঞ্জ থানার এস আই আউয়াল থেকে জানা যায়, বুধবার বিরামপুর বাজারে ভাই ভাই ইত্যাদি স্টোরে ভাংচুর হয়েছে। আমারা ৯৯৯ নাম্বারে কল পেয়ে ঘটনাস্থল গিয়ে পরিদর্শন করি। এ ব্যাপারে দোকানের মালিক তোফায়েল বেপারী বুধবার ফরিদগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছে। আমরা শীঘ্রই হামলাকারীদের ব্যাপারে ব্যবস্থা নিবো।

ক্যাপশন: ফরিদগঞ্জ উপজেলার বিরামপুর বাজারে দোকানে সন্ত্রাসী হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটের প্রতিবাদে বাজার ব্যবসায়ী সমিতির উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিলে উপস্থিত ব্যবসায়ী সমিতির সদস্যবৃন্দ।

Related posts