এক মৌসুমেই পেঁয়াজ বেচে কোটিপতি

কথায় আছে-‘কারও পৌষমাস কারও সর্বনাশ’। এ কথাটাই যেন আরেকবার প্রমাণিত হলো ভারতের কর্নাটক রাজ্যে। দেশটিতে যখন পেঁয়াজের আকাশ ছোঁয়া দামে সকলের হা-হুতাশ, তখন কর্নাটকের এক কৃষকের মুখে তৃপ্তির হাসি।

হবেই না বা কেন? ১০ একর জমিতে পেঁয়াজ চাষ করে তিনি এখন কোটিপতি। কারণ নভেম্বরে যে পেঁয়াজের দাম ছিল কেজি ৭০ রুপি, সেই পেঁয়াজ কয়েকদিন আগে বিক্রি করেছেন ১২০ রুপিতে। ১০ একর জমিতে চাষ করে পেঁয়াজ উৎপাদিত হয়েছে ২৪০ টন।

মল্লিকার্জুনা (৪২) নামের ওই কৃষকের বসবাস কর্নাটক রাজ্যের চিত্রাদুর্গা জেলায়।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়াকে তিনি জানিয়েছেন, ১৫ লাখ রুপি ঋণ নিয়ে পেঁয়াজ চাষ শুরু করেন তিনি। ভয় কাটিয়ে ভালো দাম পেয়েছেন। ঋণের ১৫ লাখ রুপি পরিশোধ করে জমিয়েছেন কোটি রুপির ওপরে। আরও ১০ একর জমি লিস নিয়ে ৫০ জন শ্রমিক ভাড়া করেছেন। এসব জমিতেও পেঁয়াজ চাষ করবেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘প্রথমে সংশয় ছিল যে, শেষ পর্যন্ত ঋণের টাকা উঠবে কি না। কারণ, ভালো দাম না পেলে আমি ঋণে ডুবে যেতাম। তবে শেষ পর্যন্ত লাভের মুখ দেখেছি। ১৫ লাখ রুপি ঋণ পরশোধ করে বাড়তি কোটি রুপির মুখ দেখতে পেরেছি।’

ভারতে পেঁয়াজ কিনতে যখন সর্বসাধারণের নাভিশ্বাস, তখন সেই পেঁয়াজেরই বদৌলতে রাতারাতি সেলিব্রেটিতে পরিণত হয়ছেন কর্নাটকের এই কৃষক।

Related posts