সেলফি তুলতে গিয়ে মেঘনায় তলিয়ে গেল বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী মতলবের ফাহিম

মেঘনা নদীতে সেলফি তোলার সময় পানিতে পড়ে গিয়ে ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটির এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। গতকাল সোমবার সন্ধ্যা সাতটার দিকে মুন্সিগঞ্জ সদর উপজেলার চর আব্দুল্লাহ এলাকা থেকে ওই শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার করে মুন্সিগঞ্জ ফায়ার স্টেশনের কর্মীরা।

নিহত শিক্ষার্থীর নাম মোঃ ফাহিম (২০)। সে চাঁদপুর জেলার মতলব উপজেলার ঠেঙ্গার এলাকার বাবুল হোসেনের ছেলে। ফাহিম ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটির কম্পিউটার সায়েন্সের দ্বিতীয় সেমিস্টারের ছাত্র ছিলো।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, ফাহিম চর আব্দুল্লাহ এলাকায় তাঁর বন্ধু ইমরানের বাড়িতে বেড়াতে যায়। আজ সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ইমরানসহ তিনজন মেঘনা নদীর পাড়ে বেড়াতে বের হয়। ফাহিম ছবি তোলার জন্যে নদীতে কোমর সমান পানিতে নামে। এ সময় নদীর কিনারা থেকে ছবি তুলছিলো ইমরান। ছবি তোলার একপর্যায়ে বিশাল এক ঢেউয়ের তোড়ে ফাহিম ভেসে যায়।

ইমরানের বরাত দিয়ে চর আব্দুল্লাহ ফাঁড়ির মুন্সি মোঃ আরিফুল ইসলাম বলেন, ফাহিম পানিতে হাত নাড়ছিল। ইমরান ভেবেছিল এটাও ছবি তোলার একটা পোজ হবে। ইমরান বুঝে ওঠার আগেই ফাহিম পানিতে তলিয়ে যায়।

উদ্ধার অভিযানে অংশ নেয়া মুন্সিগঞ্জ ফায়ার স্টেশনের কর্মী মোঃ জসিম উদ্দিন জানান, ফাহিম ও ইমরান কেউ সাঁতার জানত না। ফাহিমের নিখোঁজের খবর পেয়ে উদ্ধার অভিযান শুরু করি। সন্ধ্যায় লাশ উদ্ধার করে স্বজনদের বুঝিয়ে দেয়া হয়।

Related posts