এবার ২০ কোটি টাকা থোক বরাদ্দ এমপিদের

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়ী সংসদ সদস্যরা তাঁদের নিজ নিজ এলাকার রাস্তাঘাট, সেতু, কালভার্ট নির্মাণে তাঁদের প্রতিশ্রুত পুরো ২০ কোটি টাকা এখনো না পেলেও

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়ী এমপিদের ২০ কোটি টাকা করে বরাদ্দ দেওয়ার তোড়জোড় শুরু হয়েছে। আওয়ামী লীগ সরকারের টানা তৃতীয় মেয়াদে এসে সংসদ সদস্যরা তাঁদের নিজ নিজ নির্বাচনী এলাকার রাস্তাঘাট, সেতু, কালভার্ট নির্মাণে বড় অঙ্কের টাকা পেতে যাচ্ছেন।
৩০০ জনের মধ্যে ২৮০ জন সংসদ সদস্য প্রত্যেকে তাঁদের নির্বাচনী এলাকার অবকাঠামো উন্নয়নে
২০ কোটি টাকা করে পাচ্ছেন। আগামী চার বছরে প্রতিবছর পাঁচ কোটি টাকা করে মোট ২০ কোটি টাকা পাবেন এমপিরা।

তবে ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনা ও বরিশাল সিটি করপোরেশনের আওতায় ২০টি আসনের এমপিরা এই সুবিধা পাবেন না।সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্যরা এই সুবিধার বাইরে থাকবেন। ‘অগ্রাধিকার ভিত্তিতে গুরুত্বপূর্ণ পল্লী অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প’ (৩) এর আওতায় এমপিরা এই টাকা পাবেন। এর আগে ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ প্রথম সরকার গঠনের পর প্রত্যেক এমপি নিজ আসনের অবকাঠামো উন্নয়নে ১৫ কোটি টাকা করে পেয়েছিলেন।
আওয়ামী লীগ সরকারের দ্বিতীয় মেয়াদে এমপিদের ২০ কোটি টাকা করে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছিল। যদিও ওই প্রকল্পটি এখনো শেষ হয়নি। আগামী জুনে প্রকল্পটি শেষ হওয়ার কথা। এমনকি প্রকল্পটি যথাযথভাবে বাস্তবায়ন হয়েছে কি না কিংবা কোনো ত্রুটি ছিল কি না-এসংক্রান্ত কোনো মূল্যায়নই হয়নি। চলমান প্রকল্প শেষ না করে, প্রকল্পের মূল্যায়ন না করে তৃতীয় মেয়াদে এমপিদের ফের ২০ কোটি টাকা করে দেওয়ার উদ্যোগ গ্রহণ করেছে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়। যদিও সংসদ সদস্যরা তাঁদের নির্বাচনী এলাকার উন্নয়নে ৩০ কোটি টাকা করে চেয়েছিলেন। কিন্তু স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়েছে, প্রত্যেক এমপির নির্বাচনী আসনে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের অনেক প্রকল্প চলমান আছে। তা ছাড়া ১০ বছরে রাস্তাঘাট নির্মাণে অনেক প্রকল্প বাস্তবায়নও হয়েছে। তাই এত টাকা বরাদ্দ দেওয়ার প্রয়োজন নেই। স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বরাবরই বলে আসছেন-এই প্রকল্পের আওতায় এমপিরা সরাসরি টাকা পাবেন না। এমপিরা শুধু তাঁদের নির্বাচনী আসনে পছন্দ মোতাবেক প্রকল্পের নাম দেবেন। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর।

Related posts