আবাসিক বাসা থেকে অসামাজিক কাজে লিপ্ত থাকায় ৮ যুবক-যুবতী আটক

চাঁদপুরে আবাসিক বাসা থেকে এলাকাবাসীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে তাদের সহযোগিতায় অসামাজিক কাজে লিপ্ত থাকায় চাঁদপুর সদর মডেল থানার পুলিশ কর্তৃক ৮ যুবক-যুবতীকে আটক করা হয়েছে। ঘটনাটি শুক্রবার রাতে ঘটলেও শনিবার সকাল ১১টায় পুলিশ তাদেরকে চাঁদপুর শহরের বিষ্ণুদী মাদ্রাসা রোডস্থ জেনিকা বিনতে কবিরের একটি ভাড়া করা বাসা থেকে আটক করতে সক্ষম হয়।

চাঁদপুর মডেল থানার পুলিশ কর্তৃক আটককৃতরা হচ্ছে : বাসা ভাড়া নিয়ে যুবক-যুবতীদেরকে এ বাসায় সুযোগ করে দেয়া যুবতী জেনিকা বিনতে কবির (২৩), শ্রবণী সেন (২০), মনি আক্তার (২০), যুবক মোঃ কামাল হোসাইন (২২), মোঃ হাবিবুর রহমান (২২), আকিল উদ্দিন ইব্রাহিম (২২), মোঃ আবু বক্কর (২৩) ও মোঃ আল-আমিন (২১)। এদের বাড়ি শহরের মাদ্রাসা রোড, হাজীগঞ্জ, মতলব, গুয়াখোলা ও সদর উপজেলার দাসাদী ও বিষ্ণুপুর এলাকায়।

এ অভিযানে নেতৃত্ব দেন মডেল থানার উপ-পরিদর্শক মোঃ মফিজুর ইসলাম ও সহকারী উপ-পরিদর্শক মোঃ শাখায়াত হোসেন ও সঙ্গীয় পুলিশ ফোর্স। এ ঘটনায় চাঁদপুর মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, চাঁদপুর শহরের বিষ্ণুদী মাদ্রাসা রোডস্থ এলাকার একটি বাসায় জেনিকা বিনতে কবির (২৩) নামক জনৈক নারী ভাড়া নিয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ অসামাজিক কাজ চালিয়ে যাচ্ছিল। এ ধরনের অসামাজিক কার্যকলাপ এলাকাবাসীর দৃষ্টিগোচর হয়। এতে করে এলাকাবাসীর মধ্যে মারাত্মক উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে গত শুক্রবার রাতে ঐ বাসায় একদল যুবক অবস্থান নেয়ার কারণে এলাকাবাসীর মধ্যে এ খবর ছড়িয়ে পড়ে। এতে করে এলাকাবাসী এক হয়ে ঐ বাসাটির বাহির দিক থেকে দরজায় তালা লাগিয়ে বন্ধ করে দেয়। পরে এলাকাবাসী পুলিশকে খবর দিলে চাঁদপুর মডেল থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে ঐ বাসার দরজার তালা খুলে বাসা থেকে ৮জন যুবক-যুবতীকে আটক করে চাঁদপুর মডেল থানায় নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে চাঁদপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ নাছিম উদ্দিন জানান, এ ধরনের অসামাজিক কাজের খবর পাওয়ার পর থানার অফিসারকে ঘটনাস্থলে পাঠিয়ে একটি বাসা থেকে ৮জন যুবক-যুবতীকে আটক করা হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলা হলে তদন্ত করে এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Related posts