ব্যাটারিচালিত রিকশা বন্ধের প্রতিবাদে মালিক ও চালকদের চাঁদপুর পৌরসভায় অবস্থান

চাঁদপুর শহরে ব্যাটারিচালিত রিকশা বন্ধের প্রতিবাদ এবং চলাচলের দাবি জানিয়েছে মালিক ও চালকরা। ২১ জানুয়ারি মঙ্গলবার সকালে শতাধিক চালক ও গ্যারেজ মালিক পৌরসভায় অবস্থান নিয়ে এ প্রতিবাদ ও দাবি জানায়। এ সময় চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ নাছির উদ্দিন আহমেদ তাদের সাথে কথা বলেন এবং ব্যাটারিচালিত রিকশা চলাচলের বিষয়ে সকল মহলের দাবির প্রেক্ষিতে সিদ্ধান্তের কথা জানান।

রিকশা গ্যারেজ মালিকদের পক্ষে ইউসুফ খলিফা, সুমন মোস্তান, রফিকুল ইসলামসহ অনেকে জানান, অনেক প্রতিবন্ধী ও শারীরিকভাবে দুর্বল গরীব অসহায় মানুষ ব্যাটারিচালিত রিকশাগুলো চালিয়ে থাকে। আর অনেকে ঋণ করে রিকশায় ব্যাটারি লাগিয়েছে। কিন্তু পৌরসভা কর্তৃপক্ষ সেগুলো ভেঙ্গে দিচ্ছে। এমনকি গ্যারেজে ঢুকেও ব্যাটারি নষ্ট করছে। আমরা চাই, পৌরসভা আমাদের ব্যাটারিচালিত রিকশার অনুমোদন দিক।

পৌরসভার প্রশাসনিক কর্মকর্তা মফিজ উদ্দিন হাওলাদার জানান, পৌর মেয়র মহোদয় গ্যারেজ মালিকদের জানিয়েছেন, ব্যাটারিচালিত রিকশা পুরোপুরি অবৈধ। এটা রাস্তায় নামানো যাবে না। গ্যারেজে থাকলেও অটো রিকশা অবৈধ যান হিসেবে বিবেচিত হবে। গত ১ বছর ধরে এই যানবাহনটি বন্ধের জন্যে নির্দেশনা দেয়া হয়েছিলো। এছাড়াও বিভিন্ন মহল থেকে এই যানবাহনটি চলাচল বন্ধের দাবি তোলা হয়েছে।

এদিকে পৌরসভা সূত্রে আরো জানা যায়, গত ২০১৮ সালের জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের একটি সভায় প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানি উপদেষ্টা ড. তৌফিক এলাহী স্বাক্ষরিত একটি পত্রে এ বিষয়ে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। সেখানে উল্লেখ করা হয়, ব্যাটারিচালিত রিকশা দুর্ঘটনাপ্রবণ যান। এটিকে বন্ধ রেখে পরিবেশবান্ধব ব্যাটারিচালিত ইজি বাইক চলতে পারে।

উল্লেখ্য, ব্যাটারিচালিত রিকশায় আরোহী হয়ে ইতঃমধ্যে অনেক যাত্রী দুর্ঘটনার শিকার হয়েছে। চালকরা বেশিরভাগ সময় এটির নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারে না। তাই এ যানবাহনটি বন্ধের জন্যে সচেতন পৌরবাসীর পক্ষ থেকে জোরালো দাবি উঠেছে।

Related posts