এখন চলছে মনোনয়ন যুদ্ধ

চাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হওয়ার পর সরগরম হয়ে উঠেছে চাঁদপুরের রাজনৈতিক অঙ্গন। এখন চাঁদপুরের রাজনৈতিক অঙ্গনসহ সর্বত্র এ নির্বাচন নিয়েই চলছে আলোচনা। এখন চলছে প্রার্থী নিয়ে জল্পনা-কল্পনা। কারা কারা প্রার্থী হচ্ছেন বা দলের মনোনয়ন পাচ্ছেন তা নিয়েই এখন চলছে সকল জল্পনা-কল্পনা। বিএনপি নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে এটা অনেকটা নিশ্চিত। তাই উভয় রাজনৈতিক দলের মাঝেই মেয়র প্রার্থী নিয়ে জল্পনা-কল্পনা চলছে। পুরানো দুই প্রতিদ্বন্দ্বী অর্থাৎ নাছির উদ্দিন আহমেদ এবং শফিকুর রহমান ভূঁইয়াই কি হচ্ছেন মূল প্রতিদ্বন্দ্বী? নাকি নতুন মুখ আসছে! এ নিয়েই চলছে মূলত নানা আলোচনা এবং নানাদিক বিচার বিশ্লেষণ। আওয়ামী লীগ ও বিএনপি এ বড় দুটি দল ছাড়াও ছোটখাটো আরো কিছু দল থেকেও মেয়র পদে কেউ কেউ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে বলে জানা গেছে।

চাঁদপুর পৌরসভার বর্তমান মেয়র জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাছির উদ্দিন আহমেদ এবারো দল থেকে মনোনয়ন চাইবেন। শুধু চাইবেনই না, তিনি শক্তিশালী মনোনয়ন প্রত্যাশী। মেয়র নাছির উদ্দিন আহমেদ একনাগাড়ে ১৪ বছর চাঁদপুর পৌরসভার মেয়রের দায়িত্ব পালন করছেন। সামনে আরো একবার তিনি সুযোগ চাচ্ছেন পৌরবাসীর কাছে। তবে এর আগে তাঁকে দলের মনোনয়ন বাগিয়ে আনতে হবে। এর জন্যে অবশ্য তিনি সকল প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছেন। এর বাইরে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে আলোচনায় তুঙ্গে আছেন জেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক এবং চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি অ্যাডঃ জিল্লুর রহমান জুয়েল। তিনি চট্টগ্রাম ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নেতৃত্বে দীর্ঘ সময় থাকার সুবাদে এবং সদা হাস্যোজ্জ্বল ও সদালাপী হওয়ার কারণে আওয়ামী লীগের নীতি নির্ধারণী পর্যায়ে তাঁর বেশ পরিচিতি রয়েছে। সে সূত্র ধরে তিনিও দলীয় মনোনয়ন বাগিয়ে আনতে সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। এর পাশাপাশি মেয়র পদে দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার লড়াইয়ে আরো যারা আছেন তারা হচ্ছেন জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক তাফাজ্জল হোসেন এসডু পাটোয়ারী, অ্যাডঃ মজিবুর রহমান ভূঁইয়া, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক মাসুদ আলম মিল্টন এবং সহ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান ইমাম বাদশা। এদের মধ্যে তাফাজ্জল হোসেন এসডু পাটওয়ারী অনেক আগে থেকেই ব্যক্তিগতভাবে প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। এর বাইরে গত ক’দিন যাবত আলোচনা শোনা যাচ্ছে জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি, চাঁদপুর পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান ও সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ ইউছুফ গাজীর নাম। তিনিও দলের মনোনয়ন চাইবেন বলে বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে।

এদিকে বিএনপির মধ্য থেকে এখনো শফিকুর রহমান ভূঁইয়ার নামই শোনা যাচ্ছে। তিনি ইতিপূর্বে একবার এই পৌরসভার চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেছেন। এরপর তিনি দুইবার বর্তমান মেয়রের সাথেই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে হেরেছেন। এবারো তিনি মেয়র পদে নির্বাচন করবেন এবং বিএনপি থেকেই মনোনয়ন নিয়ে নির্বাচন করবেন বলে বেশ জোর দিয়ে তিনি বলেছেন। এটাই তার শেষ নির্বাচন বলে তিনি সমপ্রতি চাঁদপুর কণ্ঠের কাছে এক প্রতিক্রিয়ায় জানিয়েছেন। তবে শেষ পর্যন্ত এই বড় দুটি দল থেকে মনোনয়ন কারা পাচ্ছেন তা নিশ্চিত হতে আরো কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে। উভয় দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা এখন দলের মনোনয়ন পেতে ঢাকা অবস্থান করছেন বলে জানা গেছে।

উল্লেখ্য, চাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ ২৯ মার্চ রোববার। মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষদিন ২৭ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার, মনোনয়নপত্র বাছাই ১ মার্চ রোববার এবং ৮ মার্চ রোববার মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষদিন। আর চূড়ান্ত ও বৈধ প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হবে ৯ মার্চ সোমবার।

Related posts