ডাঃ পীযূষ কান্তি বড়ুয়ার ‘১০০ কবিতা’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন

কর্ণফুলির নিবিড় মায়ায় বিকশিত গ্রাম চরণদ্বীপের মাটিতে জন্মগ্রহণ করেন ডাঃ পীযূষ কান্তি বড়ুয়া। সাদা মনের এ মানুষটির পিতার নাম সুরেশ চন্দ্র বড়ুয়া। রত্নগর্ভা মায়ের নাম পাখি রাণী বড়ুয়া। ডাঃ পীযূষ কান্তি বড়ুয়ার ‘তোমার নিবীতে অন্য কেউ’ কাব্যগ্রন্থ ২০০৪ সালে প্রকাশিত হয়। ২০১০ সালে ‘আমার মায়ের সুচিকিৎসা চাই’ কবিতাপত্র প্রকাশিত হয়। ‘সায়নালোকে এক জীবনের সন্ধ্যায়’ উপন্যাস ২০১৩ সালে প্রকাশিত হয়। ‘ইলিশের বাড়ি’ ছড়াগ্রন্থ ২০১৭ সালে প্রকাশিত হয়। ২০১৮ সালে প্রকাশিত হয় ‘প্রজ্ঞা-প্রসূন’ প্রবন্ধ সংকলন, ‘কল্পকুসুম’ ছোটগল্প সংকলন, ‘ঘুমের মধ্যে লীলা আসে’ উপন্যাসসহ বেশকিছু গ্রন্থ। এ বছর ‘১০০ কবিতা’ বই প্রকাশিত হয়।

গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে চাঁদপুর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে বইমেলায় এ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন ও সনাকের আয়োজনে কবিতা প্রহর অনুষ্ঠিত হয়। টিআইবির রাজন চন্দ্র দের সঞ্চালনায় কবিতা আবৃত্তি করেন সনাকের সাবেক সভাপতি কাজী শাহাদাত, বর্তমান সভাপতি অধ্যক্ষ মোশারেফ হোসেন, সহ-সভাপতি মোঃ আব্দুল মালেক, ডাঃ পীযূষ কান্তি বড়ুয়া, রয়মনেননেছা মহিলা ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ আফরোজা খাতুন, বঙ্গবন্ধু লেখক পরিষদের সভাপতি সামীম আহমেদ খান, সনাক সদস্য রফিক আহমেদ মিন্টু, কবি মাহবুবুর রহমান সেলিম, বঙ্গবন্ধু আবৃত্তি পরিষদের সভাপতি মুক্তা পীযূষ, কবি মুহাম্মদ ফরিদ হাসান ও শিক্ষার্থী মেঘাশ্রী।

উপস্থিত ছিলেন স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ সৈয়দা বদরুন নাহার চৌধুরী, অযাচক আশ্রমের অধ্যক্ষ কবিরাজ সুখরঞ্জন ব্রহ্মচারী, কণ্ঠশিল্পী কৃষ্ণা সাহা ও জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন।

Related posts