এ বছর জাটকা রক্ষার অভিযান সর্বোচ্চ পর্যায়ের হবে

জাটকা রক্ষা সংক্রান্ত চাঁদপুর জেলা টাস্কফোর্স কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মৎস্য অধিদপ্তর, চাঁদপুর আয়োজিত এ সভা গতকাল ২৩ ফেব্রুয়ারি বিকেল ৩টায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপ্রধানের বক্তব্যে জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান বলেন, চাঁদপুর হচ্ছে ইলিশের মায়ের বাড়ি। মা ইলিশ ও জাটকা রক্ষা করতেই হবে। ১ মার্চ হতে এ বছর জাটকা রক্ষার অভিযান সর্বোচ্চ পর্যায়ের এবং সুন্দরভাবে হবে। তিনি আরো বলেন, আধুনিক টেকনোলোজি ব্যবহার করে একটি অ্যাপসের মাধ্যমে নিবন্ধিত ৫১ হাজার জেলে নৌকাগুলো গুগুল ম্যাপে রাখতে চাই। এজন্যে আমরা একটি সফ্টওয়্যার ও অ্যাপস বানাবো। যাতে মাছ ধরা নিষিদ্ধ সময়ে জেলে নৌকার লোকেশন সনাক্ত করা যায়। এছাড়া চাঁদপুরের নৌপথকে নিরাপদ রাখতেও কাজ করবে এই অ্যাপস।

তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ডিজিটাল বাংলাদেশে আমরা স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা ও দুর্নীতিমুক্ত চাঁদপুর জেলা নিশ্চিত করতে চাই। সে লক্ষ্যে রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ, জনপ্রতিনিধিসহ সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা তিনি কামনা করেন। পাশাপাশি তিনি জেলা টাস্কফোর্সের সদস্যদের জাতীয় মৎস্য সম্পদ রক্ষায় আন্তরিকভাবে কাজ করার আহ্বান জানান। সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আসাদুল বাকী।

বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মাহমুদ জামান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ জামাল হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) জাহিদ পারভেজ চৌধুরী।

সভায় এনএসআই’র যুগ্ম পরিচালক আজিজুল হক, চাঁদপুর সদর ইউএনও কানিজ ফাতেমা, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এএইচএম আহসান উল্লাহ, চাঁদপুর বরফ কল মালিক সমিতির সাবেক সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল্লাহ, নৌ থানার ওসি আবু তাহের, কোস্টগার্ডের প্রতিনিধি, চাঁদপুর মৎস্য বণিক সমবায় সমিতির সভাপতি আঃ খালেক মাল, সাধারণ সম্পাদক হাজী শবেবরাতসহ উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তাগণ এবং কমিটির অন্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

উন্মুক্ত আলোচনায় বক্তব্য রাখেন হাইমচর উপজেলা সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা মিজানুর রহমান, জেলা আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের সভাপতি আঃ মালেক দেওয়ান, কান্ট্রি ফিশিং বোটের সভাপতি শাহআলম মলি্লক, জাতীয় মৎস্যজীবী পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মানিক দেওয়ান, মতলব উত্তর উপজেলা আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের সভাপতি ওমর আলী প্রধানিয়া প্রমুখ।

Related posts