পৌর ১১নং ওয়ার্ডে তুলনাহীন জনপ্রিয়তা কাউন্সিলর মাইনুল ইসলাম পাটওয়ারী

মুহাম্মদ বাদশা ভূঁইয়া।। চাঁদপুর পৌরসভার ১১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর একজন সৎ, ত্যাগী, নিরহংকার, পরিচ্ছন্ন, নিবেদিত ও কর্মিবান্ধোব আদর্শের রাজপথে সাহসী এক যোদ্ধা।

বিগত চাঁদপুর পৌরসভার নির্বাচনে বিপুল ভোটে বিজয়ী হওয়ার পর থেকে তিনি এলাকার রাস্তা প্রশস্তকরণ, ড্রেনেজ ব্যবস্থার আধুনিকায়ন, বিশেষ ভূমিকা অব্যাহত রেখেছেন। শুধু তাই নয় সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ ও মাদকের বিরুদ্ধে তার অবস্থান প্রশংসনীয়। যার ফলে মাইনুল ইসলাম পাটওয়ারী অপ্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে অবস্থান করছেন জনতার মনিকোঠায়।

সাদামাটা জীবনযাপন করা এই ব্যাক্তি একই সাথে নিজের ব্যাক্তিগত জীবন, রাজনৈতিক অঙ্গন, নিজ এলাকার বাসিন্দাদের মন জয় করে তাদের ভালোবাসা অর্জন সব ক্ষেত্রেই সমানতালে সফলতা অর্জন করেছেন। আর তার এই সফলতার পেছনে অন্যতম প্রধান কারন তার অতিসাধারন জীবনযাপন ও মানুষের বিপদে আপদে সর্বক্ষন পাশে থাকার এক আদম্য মানষিকতা। যা তাকে তার এলাকার সর্বস্তরের মানুষের মধ্যমণি করে রেখেছে। দিনরাত, ঝড়-বৃষ্টি সব প্রতিবন্ধকতাকে জয় করে মানুষের বিপদে আপদে সর্বদা পাশে দাঁড়িয়েছেন।কেউ কোন সমস্যা নিয়ে তার কাছে এলে শত ব্যাস্ততার ভিড়েও হাসিমুখে ধৈর্য সহকারে তাদের কথা শুনেছেন, সমস্যা সমাধানের সর্বাত্মক চেষ্টা করেছেন। এলাকার উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে রেখেছেন অসামান্য অবদান।
দলীয় নেতাকর্মী সহ সাধারণ ভোটাররা মনে করছেন এটা প্রমাণিত যে, ১১নং ওয়ার্ডে মাইনুল ইসলাম পাটওয়ারী বিকল্প আর নেই।

এলাকায় আওয়ামীলীগ বা বিএনপি শুধু নয় দলমত নির্বিশেষে সাধারণ মানুষের মধ্যে কাউন্সিলর মাইনুল ইসলাম পাটওয়ারী এর আকাশচুম্বি জনপ্রিয়তা রয়েছে। আগামী নির্বাচনে তাকে পুনরায় তার বিজয়ী হওয়া শতভাগ সুনিশ্চিত। উন্নয়নের স্রোতধারা আরো বেগবান করতে, মোঃ মাইনুল ইসলাম পাটওয়ারীকে ১১ নং ওয়ার্ড এর জনগণ পূনরায় কাউন্সিলর হিসেবে দেখতে চায়।

Related posts