আন্তর্জাতিক নারী দিবসে র‌্যালি ও আলোচনা সভা

‘প্রজন্ম হোক সমতার, সকল নারীর অধিকার’ এবং ‘টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট, সুশাসন, সমতা ও নারী’ এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে জেলা প্রশাসন ও জেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর, চাঁদপুরের আয়োজনে সনাক-টিআইবির অংশগ্রহণে আন্তর্জাতিক নারী দিবস-২০২০ উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল ৮ মার্চ রোববার সকাল সাড়ে ৯টায় সার্কিট হাউজ থেকে র‌্যালি শুরু হয়ে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে এসে শেষ হয় এবং র‌্যালি পরবর্তী আলোচনা সভা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। র‌্যালি ও আলোচনা সভায় ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মাহমুদ জামানের সভাপ্রধানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় অতিরিক্ত কমিশনার মোঃ নূরুল আলম নিজামী।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, দেশের সামগ্রিক উন্নয়নে নারীরা আজ আলোকবর্তিকা হিসেবে কাজ করছে। নারীদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় ২০১০ সালে ধর্মীয় দৃষ্টিকোণ বিবেচনায় নারীবান্ধব একটা ‘নারী নীতিমালা’ তৈরি করেছে সরকার। এছাড়াও সরকার নারীদের সাবলম্বী করার জন্যে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। যার কারণে নারীরা আজ সাবলম্বী।

তিনি আরো বলেন, নারী নেতৃত্বে দেশ এখন অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। নারীর ক্ষমতায়ন ও নারীদের সর্বোচ্চ শিক্ষা প্রদানে সরকার বহু পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। সরকার নারী শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ায় আরও উৎসাহিত করার জন্যে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ে নারীদের জন্যে বৃত্তির প্রবর্তন ও বিনামূল্যে বই বিতরণ করছে। এছাড়া সরকার পিছিয়েপড়া জনগোষ্ঠীকে এগিয়ে নেয়ার জন্যে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কারিগরি শিক্ষা বাস্তবায়নের জন্যেও কাজ করছে সরকার। তিনি আরও বলেন, সবাইকে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে এগিয়ে আসতে হবে। নারীদের প্রতিটি ক্ষেত্রে আরও বেশি সচেতন হতে হবে। সমাজব্যবস্থায় নারী ও পুরুষকে সমানভাবে দেখতে হবে। আমাদেরকে সমতার অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। তিনি বলেন, আমরা যদি নারীদের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকা-ে আরো বেশি করে কাজে লাগাই এবং তাদেরকে যথাযথভাবে মর্যাদা দেই, তাহলেই আজকের এ নারী দিবসের সার্থকতা আসবে। তিনি র‌্যালি ও আলোচনা সভায় উপস্থিত হওয়ার জন্যে সকলকে ধন্যবাদ জানান।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান বলেন, দেশের রাজনৈতিক, সামাজিক, অর্থনৈতিক সকল কাজে নারীরা এগিয়ে যাচ্ছে। নারীকে বাদ দিয়ে পৃথিবীর কোনো দেশেই উন্নয়ন সম্ভব নয়। নারীরা এখন অনেক বেশি উদ্যমী। তিনি আরও বলেন, নারীরা নির্যাতিত হচ্ছে এমন কোনো সংবাদ পেলে আমরা তাৎক্ষণিক সেখানে ছুটে যাই। পূর্বে আমরা দেখেছি নারীরা নির্যাতিত হলেও তেমন কোনো প্রতিবাদ করতো না কিন্তু আজ তার ব্যতিক্রম। আমরা দেখছি নারীরা যদি কোথাও কোনো নির্যাতনের শিকার হয় তাহলে তারা থানায় গিয়ে অভিযোগ করে। তারা প্রতিবাদ করতে শিখেছে। পুরুষের পাশাপাশি নারীরা আজ সমানতালে এগিয়ে যাচ্ছে। আজ বহু মানুষ ৯৯৯-এ কল করে সেবা নিচ্ছে। লেখাপড়ায়ও নারী শিক্ষার্থীরা খুবই অগ্রসর। তিনি আরও বলেন, নারীরা তাদের মেধা ও শিক্ষা দিয়ে আরও এগিয়ে যাবে_এ প্রত্যাশা করছি।

সভাপতির বক্তব্যে ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মাহমুদ জামান বলেন, অধিকার কেউ কাউকে দেয় না, নিজের অধিকার নিজেকেই তৈরি করে নিতে হবে। তেমনি নারীদেরকে তাদের নিজের অধিকার প্রতিষ্ঠায় এবং একটি সুন্দর বাংলাদেশ গড়ে তুলতে হলে নারীদের নিজ উদ্যোগে এগিয়ে আসতে হবে। তিনি আরও বলেন, শিক্ষা ও কর্মসংস্থান এ দুটি ক্ষেত্রে নারীদের স্বতঃস্ফূর্তভাবে এগিয়ে আসতে হবে। নারীরা যেনো কোনোভাবেই তাদের প্রাপ্য অধিকার থেকে বঞ্চিত না হয় সেদিকেও আমাদের খেয়াল রাখতে হবে। তিনি বলেন, দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন থেকে শুরু করে প্রতিটি ক্ষেত্রে নারীরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। তিনি র‌্যালি ও আলোচনা সভায় উপস্থিত হওয়ার জন্য সকলকে ধন্যবাদ জানান।

জাতীয় মহিলা সংস্থা চাঁদপুর জেলার চেয়ারম্যান অধ্যাপক মাসুদা নূর খানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন আয়েশা রহমান ও পবিত্র গীতা পাঠ করেন বিথী বর্মন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর, চাঁদপুরের উপ-পরিচালক রাফিয়া ইকবাল। এছাড়াও জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও পৌর মেয়র নাছির উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল, স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ সৈয়দা বদরুন নাহার চৌধুরীসহ বিভিন্ন গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ বক্তব্য রাখেন।

আলোচনা সভা ও র‌্যালিতে উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার কানিজ ফাতেমা, সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক)-চাঁদপুরের সভাপতি অধ্যক্ষ মোঃ মোশারেফ হোসেন, সহ-সভাপতি মোঃ আব্দুল মালেক, সনাক সদস্য সবিতা বিশ্বাস প্রমুখ। এছাড়াও র‌্যালি ও আলোচনা সভায় চাঁদপুরের বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ, সাংবাদিকবৃন্দ, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীবৃন্দ ও সনাক-চাঁদপুরের ইয়েস-ইয়েস ফ্রেন্ডস্ গ্রুপের সদস্যবৃন্দ এবং টিআইবি কর্মীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে আন্তর্জাতিক নারী দিবসের উপর ধারণাপত্র সকলের মাঝে বিতরণ করা হয়।

Related posts