চাঁদপুরে বিয়ের তিন মাস না যেতেই স্ত্রীকে নির্যাতনের অভিযোগে স্বামী গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্ট।। চাঁদপুরে বিয়ের তিন মাস না যেতেই যৌতুক লোভী স্বামী কর্তৃক টাকার জন্যে স্ত্রীকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে অসহায় গৃহবধূ পারভীন (২২) চাঁদপুর মডেল থানায় স্বামীর বিরুদ্ধে নির্যাতনের অভিযোগে এনে মামরা দায়ের করেছে। রোববার (১৫ মার্চ) সন্ধ্যায় পুলিশ চাঁদপুর সদর উপজেলা আশিকাটি ইউনিয়ন দক্ষিণ হাঁপানিয়া মিয়াজী বাড়িতে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত মৃত আবু তাহের মিয়াজী ছেলে হাবিবুর রহমান টিটু (২৮)কে গ্রেফতার করে।

এ বিষয়ে গৃহবধূ পারভীন জানায়, পারিবারিক ভাবে মাত্র ৩ মাস আগে আমাদের বিবাহ হয়। এর মধ্যে আমার স্বামী এবং তার পরিবান আমাকে যৌতুকের জন্যে চার বার নির্যাতন করে। গত মাসে আমার পরিবারের কাছে পাঁচ লক্ষ টাকা দাবি করলে আমার বাবা নিজে বিদেশে জাওয়ার টাকা জমা না দিয়ে মেয়ের সুখে চিন্তা করে স্বামীকে দুই লক্ষ টাকা দেন। তার পর আরো ৩ লক্ষ টাকা জন্য আমাকে মানষিক ও শারিরীক নির্যাতন শুরু করে।

পারভিন আরো জানায়, বিয়ের ২/৩ দিন পর থেকেই টাকার জন্য তার স্বামী তার ওপর শারীরিক নির্যাতন শুরু করেন। টাকা দিতে অস্বীকার করলে একপর্যায়ে তাকে লাঠি, রড দিয়ে শারীরিক নির্যাতন চালান। কয়েক বার নির্যাতন করার পর আমার পরিবারকে জানাই, তার পরও আসামীর আমাকে চাপ পয়োগ করলে আমি পরিবারকে খবর দিয়ে আনি আবারো আমার বাবার সামনে আমাকে বাড়ি নির্মানে রড় দিয়ে এলো পাতারী মারধর করে স্থানীয় মেম্বারের সহযোগিতায় আমাকে চাঁদপুর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়। বাদ্য হয়ে আইনি সহায়তা পেতে আমি মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করেছি।

চাঁদপুর মডেল থানায় দায়ের করা অভিযোগের ভিক্তিতে জানা যায়, অভিযুক্ত অসামীরা হলেন, মৃত আবু তাহের মিয়াজী ছেলে হাবিবুর রহমান টিটু (২৮) আবু তাহের মেয়ে হাসিনা বেগম (৫৫) রিয়াদ হোসেনের স্ত্রী আসমা বেগম (৩৫) পিতা অজ্ঞাত মোস্তফা (৪০) পিতা অজ্ঞাত হাবিব (৫৫) হাবিবের স্ত্রী লাখি বেগম (৪০) মোস্তফার স্ত্রী মরিয়ম বেগম (৩৭) সর্ব সাং দক্ষিণ হাঁপানিয়া।

Related posts