ঢাকা, শনিবার, ২২শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ৮ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

হেফাজত কর্মীদের রুখতে ব্যার্থ ওসি কে পাঠানো হলো অবসরে

হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক হোটেলে অবরুদ্ধ হওয়া ও হেফাজতের নেতাকর্মীদের সহিংসতার ঘটনার সময়ে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলামকে অবসর দেয়া হয়েছে।

সোমবার (১৯ এপ্রিল) তাকে অবসর দিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

তিনি বিধি মোতাবেক অবসরজনিত সকল সুবিধা পাবেন বলেও প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে।

সরকারি চাকরি আইনের ৪৫ ধারায় বলা হয়েছে ‘কোনো সরকারি কর্মচারীর চাকরির মেয়াদ ২৫ (পঁচিশ) বৎসর পূর্ণ হইবার পর যে কোনো সময় সরকার, জনস্বার্থে প্রয়োজনীয় মনে করিলে কোনোরূপ কারণ না দর্শাইয়া তাহাকে চাকরি হইতে অবসর প্রদান করিতে পারিবে। তবে শর্ত থাকে যে, যেক্ষেত্রে রাষ্ট্রপতি নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষ, সেইক্ষেত্রে রাষ্ট্রপতির অনুমোদন গ্রহণ করিতে হইবে।’

মামুনুল কান্ডের পরে হেফাজত কর্মীরা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ করে টায়ার জ্বালিয়ে তাণ্ডব চালান। মামুনুলের অবরুদ্ধের জন্য ছাত্রলীগ ও যুবলীগকে দায়ী করে ওইদিন রাতেই উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম ও নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি সোহাগ রনির ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান, বাড়িঘরে ব্যাপক ভাঙচুর চালান হেফাজতের কর্মী-সমর্থকরা।

পরের দিন (৪ এপ্রিল) ওসি রফিকুল ইসলামকে প্রত্যাহার করে নারায়ণগঞ্জ পুলিশ লাইন্সে সংযুক্ত করা হয়।

সর্বশেষ - জাতীয়প্রথমপাতারাজনীতিসমসাময়িক

জনপ্রিয় - জাতীয়প্রথমপাতারাজনীতিসমসাময়িক