ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৮ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

পাখির ঠোঁটে কাগজে লেখা চিরকুট, বিস্ময় প্রকাশ এলাকাবাসীর, তান্ত্রিকতার আশংকা

সোমবার (৩১ মে) দুপুরে নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলার তেঘরিয়া গ্রামের কৃষক সন্তোষ প্রামাণিকের বাড়িতে হঠাৎ করেই এক অচীন পাখির আগমন ঘটে। ওই পাখির ঠোঁটে পাওয়া যায় হাতে লেখা আরবি ও বাংলা অক্ষরে কাগজের চিরকুট।

যেখানে লেখা ছিল প্রেমিক-যুগলের নাম। তবে, সেটি ছিল আরবি আর বাংলায় লেখা।
তাতে লেখা ছিল নুশরাত জাহান বুলবুলি, মহব্বত হোসেন এবং মোছা. পারুল আক্তার, রিয়াজুল হোসেন জয়।

এমন খবরটি এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। অচীন পাখিটি এক নজর দেখতে এলাকার শত শত নারী-পুরুষ ও শিশুরা ভিড় জমাতে থাকে ওই বাড়িটিতে। পাখিটি দেখতে কবুতর বা ঘুঘুর মত মনে হলেও প্রাথমিকভাবে পাখিটির নাম সঠিকভাবে বলতে পারেননি কেউ। অচীন পাখি বলেই ছিল মানুষের যত কৌতূহল। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও প্রচার হতে থাকে বিষয়টি নিয়ে।

ওই বাড়ির মালিক সন্তোষ প্রামাণিক বাংলানিউজকে জানান, দুপুরে হঠাৎ করেই ওই পাখিটি তাদের বাড়ির টিনের চালায় এসে বসে। এসময় তার স্ত্রী মানিকজান প্রথমে দেখতে পান এবং পাখিটিকে খাবার দেওয়ার কথা বললে পাখিটি টিনের চালা থেকে মাটিতে নেমে আসে। এসময় খাবার দিয়ে পাখিটিকে ধরে খাঁচায় বন্দি করেন তারা। পাখিটিকে খাঁচায় বন্দি করার সময় দেখতে পান ঠোঁটে হাতে লেখা আরবি ও বাংলা অক্ষরে লেখা কাগজের একটি চিরকুট। চিরকুটের নিচের অংশে বাংলা অক্ষরে লেখা দুই জন মেয়ে ও দুই জন ছেলের নাম রয়েছে। আর আরবি লেখা কেউ পড়তে পারেননি। খবরটি চারিদিকে ছড়িয়ে পড়লে আশ-পাশের গ্রামের নারী-পুরুষ ও শিশুরা এক নজর দেখতে ভিড় করেন। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

মাধনগর ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান মো. আমজাদ হোসেন দেওয়ান বাংলানিউজকে বলেন, বিষয়টি তিনি লোকমুখে শুনেছেন। বিস্তারিত তিনি কিছুই জানেন না। তবে, বিষয়টি কৌতূহলী।

সর্বশেষ - জাতীয়পাঠকসারাদেশ

জনপ্রিয় - জাতীয়পাঠকসারাদেশ