ঢাকা, বুধবার, ২০শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

‘আমি প্রতারণার শিকার, তার বিরুদ্ধে মামলা করবো’ -মুসা বিন শমসের

বিশেষ প্রতিবেদক: দশম শ্রেণি পাস আব্দুল কাদের চৌধুরী দীর্ঘদিন নিজেকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব পরিচয় দিয়ে মানুষের সাথে প্রতারণা করে আসছিলেন। সম্প্রতি ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের হাতে গ্রেফতার হন ভুয়া অতিরিক্ত সচিব পরিচয় দেওয়া প্রতারক আব্দুল কাদের চৌধুরী।

তাকে জিজ্ঞাসাবাদে তার সঙ্গে ‘ধনকুবের’ মুসা বিন শমসেরের ব্যবসায়িক সম্পর্ক রয়েছে এবং তার আইন উপদেষ্টা ছিলেন বলে জানতে পারে গোয়েন্দা পুলিশ।

এ নিয়ে গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সাড়ে তিন ঘণ্টার বেশি সময় জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ডিবি কার্যালয়ের গেটে মুসা বিন শমসের জানান, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের ভুয়া অতিরিক্ত সচিব পরিচয় দেওয়া আব্দুল কাদের একজন মিথ্যাবাদি। আমিও প্রতারণার শিকার হয়েছি। এ ভুয়া অতিরিক্ত সচিবের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেবো, তার বিরুদ্ধে মামলা করবো।

তবে, মুসা বিন শমসের আব্দুল কাদেরের বিরুদ্ধে কবে এবং কোন থানায় মামলা করবেন সে বিষয়টি সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু জানাননি।

কিন্তু পুলিশ বলছে, ভুয়া অতিরিক্ত সচিব আব্দুল কাদেরের সঙ্গে সম্পর্কের দায় মুসা বিন শমসের এড়াতে পারবেন না। কারণ উনার সঙ্গে আব্দুল কাদের মাঝির যে হৃদ্যতাপূর্ণ সম্পর্ক, তা দিয়ে বিভিন্ন মানুষকে আব্দুল কাদের মাঝি ঠকিয়েছেন। কাদের মাঝি বলেছেন, তার সঙ্গে আইজিপিসহ বড় বড় মানুষের সম্পর্ক আছে। কিন্তু উনার তো (মুসা বিন শমসের) জিজ্ঞেস করা উচিত ছিল। কিন্তু উনি জিজ্ঞেস করেননি। আব্দুল কাদের মাঝির সঙ্গে উনার একটা যোগসূত্র রয়েছে।

মুসা বিন শমসের বলেন, একজন ফ্রড (প্রতারক) লোক অতিরিক্ত সচিব পরিচয়ে ভুয়া কার্ড ছাপিয়ে আমার অফিসে গিয়েছিল। আমার সঙ্গে বিভিন্ন সময় ছবি তুলেছিল এবং সে মাঝে মাঝে আমার সঙ্গে বসে ঊর্ধ্বতন লোকদের সঙ্গে কথা বলতো। তাদের মধ্যে আইজিপি, আর্মির জেলারেলসহ ঊর্ধ্বতনদের সঙ্গে কথা বলতো। আমার বিশ্বাস ছিল যে, সে (আব্দুল কাদের) অতিরিক্ত সচিব। কিন্তু পরে প্রমাণিত হলো, সে অতিরিক্ত সচিব না, সে একজন ভুয়া অতিরিক্ত সচিব। পরে তাকে বের করে দিলাম আমি।

আরো পড়ুন: পুলিশকে দিবেন ৫০০ কোটি, নির্মাণ করবেন ২য় পদ্মা সেতু

তিনি আরও বলেন, ডিবি আমাকে আব্দুল কাদেরের বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে এবং আমি যা যা জানি সবকিছু স্পষ্ট বলেছি। আমার বক্ত্যব্যে ডিবি পুলিশ সন্তুষ্ট।

আইন উপদেষ্টা পরিচয় দেওয়ার বিষয়ে মুসা বিন শমসের বলেন, আব্দুল কাদের মিথ্যা কথা বলেছে। সে আমার আইন উপদেষ্টা ছিল না।

তার সঙ্গে বিভিন্ন সময়ে ছবি তোলার বিষয়ে তিনি বলেন, আমার সঙ্গে অনেক লোক এসে ছবি তোলে। কেউ ছবি তুলতে চাইলে আমি তাকে না করতে পারি না। আমার ছবি দেখিয়ে যদি কেউ প্রতারণা করে, সেটার দায়-দায়িত্ব আমি নিতে পারি না।

মুসাকে গতকাল ডিবি কার্যালয়ে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ডিবির যুগ্ম কমিশনার হারুন-অর-রশীদ মুসা বিন শমসের সম্পর্কে বলেন, আমার কাছে মনে হয়েছে তিনি অন্তঃসারশূন্য একজন মানুষ। একটা ভুয়া লোক মনে হয়েছে। তার কিছু নেই। তার একটা বাড়ি রয়েছে গুলশানে। সেটাও স্ত্রীর নামে। বাংলাদেশে তার নামে কিছু নেই। তবে উনি মুখরোচক গল্প বলেন। তিনি আমাদের কাছে দাবি করেছেন, এ দেশে যা উন্নয়ন হয়েছে সব তার অবদান। তার সঙ্গে আর কী কথা বলবো? তিনি খামখেয়ালিভাবে কথা বলেছেন। এ কথাগুলো আব্দুল কাদের মাঝি বিক্রি করেছেন।

উল্লেখ্য, জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থার (এনএসআই) সহায়তায় গত ৭ অক্টোবর রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে চার প্রতারককে গ্রেফতার করে গোয়েন্দা গুলশান বিভাগ। তারা হলেন- আব্দুল কাদের চৌধুরী, শারমিন চৌধুরী ছোঁয়া, শহিদুল আলম ও আনিসুর রহমান।

এদের মধ্যে প্রতারক আব্দুল কাদের চৌধুরী নিজেকে মুসা বিন শমসেরের আইন উপদেষ্টা হিসেবে পরিচয় দেন।

সর্বশেষ - জাতীয়প্রথমপাতা

জনপ্রিয় - জাতীয়প্রথমপাতা