ঢাকা, শনিবার, ৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

৮ বছর আগে মারা যাওয়া ব্যক্তির নামে মামলা

অনলাইন ডেস্ক: ৮ বছর আগে ক্যানসার আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া রবিউল আউয়াল রুবেল (৩৫)  নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে ইউপি নির্বাচনের পথসভায় হামলা ও মোটরসাইকেলে অগ্নিসংযোগের অভিযোগে মামলা করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া উপজেলার ভজনপুরে।

মৃত রুবেল তেঁতুলিয়া উপজেলার ভজনপুর ইউনিয়নের কুড়ানুগছ এলাকার রফিকুল ইসলাম বেলের বড় ছেলে। ২০১২ সালে ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে তিনি মারা যান।

ভজনপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী হারুন অর রশিদ লিটন বাদী হয়ে গত ৪ নভেম্বর তেঁতুলিয়া মডেল থানায় মামলাটি করেন। মামলার এজাহারে রুবেল নামে ওই মৃত ব্যক্তিকে ১৮ নম্বর আসামি করা হয়েছে। মামলায় মোট আসামির সংখ্যা ৫১ জন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে তেঁতুলিয়ার ভজনপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী হারুন অর রশিদ লিটন গত ৩১ অক্টোবর রাতে ভজনপুর বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন আওয়ামী লীগের দলীয় অফিসের সামনে পথসভা করছিলেন। এ সময় হঠাৎ সেখানে হামলা এবং তার এক কর্মীর মোটরসাইকেলে অগ্নিসংযোগ করা হয়। এ ঘটনায় ৪ নভেম্বর তেঁতুলিয়া মডেল থানায় হারুন অর রশিদ লিটন ৫১ জনকে আসামি করে মামলা করেন। সেই মামলার ১৮ নম্বর আসামি মৃত রুবেল।

এদিকে মৃত রুবেলের বাড়িতে গিয়ে দেখা গেছে, মৃত ছেলের নামে মিথ্যা মামলা হওয়ায় তার বাবা রফিকুল ইসলাম বেলে ও মা রাজিয়া খাতুনের চোখে মুখে হতাশার ছাপ। মৃত ভাইয়ের বিরুদ্ধে মামলা হওয়ায় আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন রুবেলের ছোট ভাই রাকিব এবং দুই বোন নার্গিস বেগম ও রুনি আক্তার।

এ বিষয়ে মৃত রুবেলের বাবা রফিকুল ইসলাম বেলে বলেন, আমার ছেলে ৮ বছর আগে ২০১২ সালে ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে। তার নাম রবিউল আউয়াল, তার ডাক নাম রুবেল। সবাই তাকে রুবেল বলে ডাকতো। ছেলে মারা যাওয়ার কষ্ট ও শোক এখনও কেটে উঠতে পারিনি আমিসহ আমার পরিবার।

তিনি বলেন, গত কয়েক দিন আগে ভজনপুর বাজারে ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে হামলা ও মোটরসাইকেলে আগুন দেওয়ার ঘটনায় যে মামলা হয়েছে সেখানে আমার ৮ বছর আগে মারা যাওয়া ছেলে রুবেলকে আসামি করা হয়েছে। বিষয়টি অনেক কষ্টদায়ক। ছেলে হারানোর কষ্ট যে কতটা সেটা একজন বাবা হয়ে বুঝতেছি। এখন ছোট ছেলেকে নিয়ে আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছি। আমার মৃত ছেলের নামে যারা মিথ্যা মামলা দিয়েছে তাদের বিচার চাই।

মামলার বাদী ও ভজনপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী হারুন অর রশিদ লিটন বলেন, গত ৩১ অক্টোবর রাতে ভজনপুর বাজারে আমার নৌকা মার্কার পথসভায় হামলাসহ আমার এক কর্মীর মোটরসাইকেলে আগুন দেওয়া হয়। এ ঘটনায় মামলা করেছি। তবে মৃত মানুষের নামে আমি মামলা করিনি। এজাহার টাইপিং করার সময় ভুল হয়েছে। রুবেলের জায়গায় তার ছোট ভাই রাকিবের নাম হবে।

তেঁতুলিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু ছায়েম মিয়া বলেন, তেঁতুলিয়া উপজেলার ভজনপুর ইউনিয়ন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে যে মামলা করা হয়েছে সেই মামলার মৃত মানুষকে আসামি করা হয়েছে -এমন খবর আমরা মামলা হওয়ার পর পেয়েছি। তবে এখনও কেউ তার মৃত্যুর সনদ দাখিল করেনি। মৃত্যুর সনদ পেলে নাম বাদ পড়বে। কেন মৃত ব্যক্তির নামে মামলা হলো- এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, এর জন্য দায়ী মামলার বাদী।

সর্বশেষ - প্রথমপাতারাজনীতিসারাদেশ

জনপ্রিয় - প্রথমপাতারাজনীতিসারাদেশ